EAST BENGAL the Real POWER -The Official Website
EAST BENGAL the Real POWER Fans

Hoptabhor East Bengal (10-17 Jan 2016) | Weekly Summary of East Bengal Football Club Related News By Anirban Mandal

নমস্কার, আপনাদের জন্যে নিয়ে এসেছি আমাদের ক্লাব ইস্টবেঙ্গলের এ সপ্তাহের খবরাখবর। সপ্তাহের শুরুতেই ফতোরদা স্টেডিয়ামে স্পোর্টিং ক্লাব দ্য গোয়াকে ৩-১ ব্যবধানে হারিয়ে আমাদের এবারের আইলিগ অভিযানের শুভ সূচনা হয়। শুরুতে গোল করে ইস্টবেঙ্গল সমর্থকদের দুশ্চিন্তায় ফেলে দেন স্পোর্টিং অধিনায়ক ওডাফা ওকোলি। কিন্তু বিরতির পর কোচ বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য তার ক্ষুরধার বুদ্ধির পরিচয় দিয়ে দুটি পরিবর্তন ঘটিয়ে ইস্টবেঙ্গলকে ম্যাচে ফিরিয়ে আনেন। এরপর র‍্যান্টি মার্টিন্স দুটি গোল করে ও বিকাশ জাইরুকে দিয়ে একটি গোল করিয়ে ওডাফার সাথে তার অলিখিত ডুয়েলটি জিতে নেন এবং ইস্টবেঙ্গলকে এনে দেন মূল্যবান তিনটি পয়েন্ট।

প্রথম অ্যাওয়ে ম্যাচ জিতে খুশি কোচ পরেরদিন পুরো দলকে ছুটি দেন। কোচ বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্যকে দেখা যায় কোলাবা সমুদ্রসৈকতে সহকারী কোচ স্যামি ওমোলো ও সঞ্জয় মাঝির সাথে সেলফি তুলতে ব্যস্ত। এক ইস্টবেঙ্গল সমর্থকের সৌজন্যে সে ছবি “ইস্টবেঙ্গল দ্য রিয়েল পাওয়ার” এর ফেসবুক পেজে আপনারা হয়ত সবাই এতদিনে দেখে ফেলেছেন। অন্যদিকে দং তার বান্ধবী হারুকার সাথে গোয়া ঘুরতে বেরোন। বাকি ফুটবলাররাও যে যার মতন দিনটি উপভোগ করেন। এরপর ইস্টবেঙ্গল গোয়াতেই তাদের মুম্বাই এফসির বিরুদ্ধে দ্বিতীয় ম্যাচের প্রস্তুতি সারতে থাকে। তাদের পুলসেশনের ছবি মিডিয়ার দৌলতে আপনাদের অনেকের দেখা হয়ে গেছে। এরইমধ্যে কোচ বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য জন্মদিন পালন করেন ফুটবলারদের সাথে কেক কেটে। কোচ আমাদের জানান যে অবশেষে তিনি ফুটবলারদের একটি পরিবার হিসাবে গড়ে তুলতে পেরেছেন। তিনি আলাদা ভাবে র‍্যান্টির প্রশংসা করেন কঠোর অনুশীলনের মাধ্যমে নিজেকে তৈরি করার জন্যে। রবিবারের ম্যাচের দুদিন আগেই ইস্টবেঙ্গল টিম মুম্বাই রওনা হয়ে যায় কুপারেজ স্টেডিয়ামের কৃত্তিম ঘাসের মাঠের সাথে মানিয়ে নিতে। তবে চোটের জন্যে ওই ম্যাচে অংশগ্রহণ করতে পারবেন না ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার সেহনাজ সিং ও রাইট ব্যাক দীপক মণ্ডল। সেহনাজের পরিবর্তে মেহতাব হোসেনের নামার সম্ভাবনা বেশি। এই ম্যাচে জিতে গেলে ইস্টবেঙ্গল দুটি অ্যাওয়ে ম্যাচ থেকে মহামূল্যবান ছয়টি পয়েন্ট তুলে নেবার পাশাপাশি মনোবল তুঙ্গে রেখে আগামী ২৩শে জানুয়ারী ডার্বি খেলতে নামবে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী মোহনবাগানের বিরুদ্ধে।

অন্যদিকে ১১ জন ফুটবলারকে নিয়ে এই শনিবার (১৬ই জানুয়ারী ২০১৬) শুরু হয়ে গেল ইস্টবেঙ্গলের ফুটবল অ্যাকাডেমি। প্রদীপ জ্বালিয়ে যাত্রা শুরু করেন ভারতীয় দলের প্রাক্তন ডিফেন্ডার অরুণ ঘোষ। এরপর শুভকামনা করে যজ্ঞ করলেন ক্লাবের প্রাক্তন ফুটবলার মনোরঞ্জন ভট্টাচার্য। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন প্রাক্তন ফুটবলার ভাস্কর গাঙ্গুলি, শ্যাম থাপা, বাইচুং ভুটিয়া, কুলজিত সিং ও ব্রুনো কুটিনহো, রাজ্য সরকারের দুই মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস ও ফিরহাদ হাকিম, এআইএফএফের সিনিয়র সহ-সভাপতি সুব্রত দত্ত এবং আইএফএর সচিব উৎপল গাঙ্গুলি। বাইচুং বলেন, "ইস্টবেঙ্গল যা করে তাতেই সেরা হয়...আমার বিশ্বাস এখানেও সেরা হবে ইস্টবেঙ্গল"। বিকালের অনুষ্ঠানে ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সুরেশ চন্দ্র চৌধুরী ও তড়িৎভূষণ রায়ের পরিবারকে সংবর্ধনা দেবার পাশাপাশি ক্লাবের মালীদের হাতে তুলে দেওয়া হয় শাল ও ২৫ হাজার টাকা। অ্যাকাডেমির ফুটবলাররা কোচ রঞ্জন চৌধুরীর তত্ত্বাবধানে সল্টলেকের বিএ-সিএ স্টেডিয়ামে অনুশীলন করবে। পাশাপাশি অ্যাকাডেমির পরিচালনায় সহায়তার জন্যে বিখ্যাত রিয়েল মাদ্রিদ ক্লাবের সাথে স্বল্পমেয়াদী চুক্তি সেরে ফেলেন ইস্টবেঙ্গল কর্তারা। আশা করা যায় পুনে এফসি, ডিএসকে শিবাজিয়ান্স-লিভারপুল অ্যাকাডেমির পাশাপাশি ইস্টবেঙ্গলের এই ফুটবল অ্যাকাডেমিও ভারতীয় ফুটবলের আঁতুড়ঘর হয়ে উঠবে।

ইস্টবেঙ্গলের পাশাপাশি সপ্তাহটা ভালো গেল ক্লাবের প্রাক্তন গোলকিপার গুরপ্রীত সিং সান্ধুরও। তার বর্তমান টিম নরওয়ের স্তাবেক ফুটবল ক্লাব টিপেলিগায়েনে তৃতীয় হয়ে উয়েফা ইউরোপা লিগের প্রথম কোয়ালিফাইং রাউন্ডে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে। এরফলে গুরপ্রীত প্রথম ভারতীয় ফুটবলার হিসাবে ইউরোপা লিগে অংশগ্রহন করার সম্মান অর্জন করে আমাদের ক্লাবকে গর্বিত করলেন। 

 

Related Articles

More Articles